ওয়েবসাইট তৈরির খরচ : কম খরচে ওয়েবসাইট তৈরির উপায়

ওয়েবসাইট তৈরির খরচ : কম খরচে ওয়েবসাইট তৈরির উপায়

ওয়েবসাইট তৈরির খরচ নিয়ে চিন্তিত। সত্যি কথা বলতে কি, একটি ভালো মানের দৃষ্টিনন্দ্বন ওয়েবসাইট তৈরি করার জন্য খুব একটা খরচ হয় না। বিশ্বাস করুন আর নাই করুন- আপনার হাতের মধ্যম মানের অ্যান্ড্রয়েড মোবাইলটি যে দামে বাজার থেকে কিনেছেন, তার চাইতে অনেকটা কম টাকা খরচ করেই আপনার নিজের জন্য অথবা ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের জন্য একটি ওয়েবসাইট তৈরি করে নিতে পারবেন। সেটা কিভাবে সম্ভব? আজ আপনাদের খুবই কম খরচে ওয়েবসাইট তৈরি করার সেই গোপন কৌশলটাই বলব।

প্রথমেই আসুন জানার চেষ্টা করি-

কিভাবে ওয়েবসাইট খুলতে হয় : (ওয়েবসাইট খোলার নিয়ম)

একটি ওয়েবসাইট খুলতে মূলত তিনটি জিনিস প্রয়োজন হয়।

১। ডোমেইন নেম

২। ওয়েব হোস্টিং স্পেস।

৩। ওয়েবসাইট তৈরি করার প্লাটফর্ম বা সিএমএস (যেমন- ওয়ার্ডপ্রেস)।

ডোমেইন নেম রেজিস্ট্রশন করতে কত টাকা খরচ হবে?

একটি টপ লেভেল কমার্শিয়াল ডোমেইন (.com domain) নেম রেজিস্ট্রেশন করতে সর্বোচ্চ ৮ থেকে ১২ ডলার (বাংলাদেশী টাকায় ৭০০ টাকা থেকে ১০০০ টাকা) লাগতে পারে।

আপনি যদি দেশীয় কোন প্রতিষ্ঠান থেকে ডোমেইন নেম রেজিস্ট্রেশন করে নিতে ইচ্ছুক হয়ে থাকেন তবে নিঃসন্দেহে ভালো কোন জনপ্রিয় ও বিশ্বস্ত ডোমেইন নেম রেজিস্ট্রার (যেমন- exonhost.com) এর কাছ থেকে রেজিস্ট্রেশন করে নিতে পারেন।

তবে বিভিন্ন কোম্পানির চটকদার বিজ্ঞাপনের ফাঁদে পরে একেবারে স্বল্পমূল্যে তথা ৬০০ টাকার নীচে ডোমেইন নেম কিনতে যাবেন না যেন। সেক্ষেত্রে প্রতারিত হবার সম্ভাবনা থাকে। কেননা, ৬০০ টাকার নীচে কারো পক্ষেই বর্তমানে কমার্শিয়াল বা (.com) ডোমেইন বিক্রি করা সম্ভব না।

এছাড়া, বাইরের বিশ্বের জনপ্রিয় কোন কোম্পানির কাছ থেকে নিতে চাইলে আমার বিচারে সব চাইতে ভালো এবং প্রতিষ্ঠিত কোম্পানি namecheap.com এর কাছ থেকে আপনার পছন্দের ডোমেইন নেমটি রেজিস্ট্রেশন করে নিতে পারেন।

সুতরাং সব কথার মূল কথা যা দাঁড়ায় –

ডোমেইন নেম রেজিস্ট্রেশন খরচ – ১০০০ টাকা

আরও পড়ুন-

অনলাইনে ইনকাম করার সকল উপায়
ওয়ার্ডপ্রেস না ব্লগার? কোনটি আপনার জন্য সেরা?
ইউটিউব চ্যানেল থেকে আয় করার উপায়

স্বল্প মূল্যে ভালো মানের ওয়েব হোস্টিং প্যাকেজের খরচ

প্রাথমিক অবস্থায় আপনার জন্য খুব হাই কনফিগারেশনের ওয়েব হোস্টিং প্যাকেজ কেনার খুব একটা প্রয়োজন নেই। আমি তো বলব- শুধমাত্র ১৫০০ টাকার মতো খরচ করলেই আপনি বাংলাদেশের সেরা ওয়েব হোস্টিং কোম্পানি XeonBD থেকে যথেষ্ঠ ভালো মানের ওয়েব হোস্টিং প্যাকেজ কিনতে পারবেন। নতুনদের জন্য যা কিনা যথেষ্ঠ’র চাইতেও অনেক বেশী।

অর্থাৎ-

ওয়েব হোস্টিং প্যাকেজ কেনার খরচ : ১৫০০ টাকা

এবার আপনার ডোমেইনটি ১৫০০ টাকায় কেনা ওয়েব হোস্টিং স্পেস এর মধ্যে হোস্ট করে তাতে সম্পূর্ণ বিনামূল্য পাওয়া যায় এমন একটি ওয়েব অ্যাপ্লিকেশন সফটওয়্যার বা কন্টেন্ট ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম (যেমন- ওয়ার্ডপ্রেস) ইনস্টল করে নিলেই আপনার ওয়েবসাইট তৈরি করা প্রায় শেষ বলা যায়।

এক্ষেত্রে আর যা যা প্রয়োজন হতে পারে-

১। একটি এসএসএল সার্টিফিকেট (SSL Certificate) – প্রায় প্রতিটি হোস্টিং কোম্পানিই বর্তমানে তাদের গ্রাহকদের ওয়েব হোস্টিং প্যাকেজের সাথে বিনামূল্যে বা ফ্রি এসএসএল সার্টিফিকেট প্রদান করে থাকে।

২। ওয়ার্ডপ্রেস থিম – আপনি যদি আপনার ওয়েবসাইটকে পেশাদার মানের লুক দিতে চান তবে একটি প্রিমিয়াম থিম কিনে ব্যবহার করতে পারেন।

প্রিমিয়াম থিম কেনার খরচ – আনুমানিক ৩৫ থেকে ৪৫ ডলার (বাংলাদেশী টাকায় ৩০০০ থেকে ৪০০০ টাকা)। তবে আপনি ইচ্ছে করলে সম্পূর্ণ বিনামূল্যে ওয়ার্ডপ্রেস থিম ডাইরেক্টরী থেকে আপনার ইচ্ছে মতো একটি থিম সিলেক্ট করে ইন্সটল করে নিতে পারবেন।

৩। প্লাগইনস কেনার খরচ – সাধারণত একটি ফ্রি প্লাগইনস ব্যবহার করেই একটি কার্যকর ও ভালো মানের ওয়েবসাইট তৈরি করা সম্ভব। তাই প্রাথমিক অবস্থায় ওয়েবসাইট তৈরি করার জন্য প্লাগইনস এর পেছনে টাকা ব্যয় না করাটাই বুদ্ধিমানের কাজ হবে।

৪। ওয়েবসাইট সেটআপ, ডিজাইন ও কন্টেন্ট তৈরির খরচ – এই ক্ষেত্রে বিষয়টি সম্পূর্ণ ঐচ্ছিক। আপনি যদি নিজে ওয়েবসাইট সেটাপ এবং ডিজাইনের কাজটি করতে পারেন তবে অতিরিক্ত একটি টাকাও খরচ করার দরকার হবে না। কিন্তু যদি তা না পারেন তবে আপনাকে একজন ওয়েব ডেভালপারকে দিয়ে কাজটি করিয়ে নিতে হবে। সেক্ষত্রে আনুমানিক খরচ হবে-

ওয়েবসাইট ডিজাইন ও ডেভালপমেন্ট এর জন্য খরচ – ৩০০০ থেকে ৫০০০ টাকা।

অর্থাৎ সব মিলিয়ে যা দাঁড়াল-

ওয়েবসাইট তৈরির খরচ

ওয়েবসাইট তৈরির খরচ
Photo by Domenico Loia on Unsplash

১০০০ (ডোমেইন) + ১৫০০ (ওয়েব হোস্টিং) + ৩০০০ (ওয়ার্ডপ্রেস থিম) + ৩০০০ (ওয়েবসাইট ডিজাইন) = ৮,৫০০ টাকা।

ওয়েবসাইট তৈরির খরচ (ফ্রি ওয়ার্ডপ্রেস থিম ব্যবহার করে)

১০০০ (ডোমেইন) + ১৫০০ (ওয়েব হোস্টিং) + ৩০০০ (ওয়েবসাইট ডিজাইন) = ৫,৫০০ টাকা।

অর্থাৎ সর্বসাকূল্যে ওয়েবসাইট তৈরির খরচ হবে ৫,৫০০ টাকা এবং এই টাকা খরচ করেই সম্পূর্ণ কার্যকর একটি ওয়েবসাইটের মালিক হতে পারবেন পুরো ১ বছরের জন্য। পরবর্তী বছরে আপনার ওয়েবসাইট সচল রাখতে চাইলে ওয়েবসাইট ডিজাইনারের খরচটা বাদ দিয়ে বাকীটা অর্থাৎ ২,৫০০ টাকা পরিশোধ করলেই যথেষ্ঠ হবে।

ওয়েবসাইট তৈরি করার নিয়ম ও ওয়েবসাইট তৈরির খরচ সম্পর্কে আরো বিস্তারিতভাবে জানতে কিভাবে একটি ওয়েবসাইট খোলা যায় লেখাটি পড়ে দেখতে পারেন। আশা করি আপনার সকল প্রশ্নের উত্তর পেয়ে যাবেন। তারপরও কিছু জানার থাকলে কমেন্ট করে সরাসরি জানতে চাইবেন। আমাদের পক্ষ থেকে যত দ্রুত সম্ভব সমাধান দেয়ার চেষ্টা করা হবে।

Share this

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *