বেসনের ফেসপ্যাক : ত্বকের যত্নে বেসনের ৩১টি ফেসপ্যাক তৈরির নিয়ম

রূপচর্চায় বেসন ব্যবহৃত হয়ে আসছে বহু আগে থেকেই। ত্বকের যত্নে বেসনের তৈরী ফেসপ্যাক যে কতটা উপকারী তা কমবেশি সবারই জানা। বেসনের ফেসপ্যাক ব্যবহারে ত্বকের বিভিন্ন সমস্যা দূর হয়ে ত্বক হয়ে ওঠে ভেতর থেকে সতেজ ও প্রাণবন্ত। আজ আমরা ত্বকের যত্নে বেসনের তৈরি ৩০ টি ঘরোয়া ফেসপ্যাক সম্পর্কে জানব।

ঘরোয়া পদ্ধতিতে বেসন তৈরি – ঘরে বসে বেসন তৈরি করার উপায়

ঘরোয়া পদ্ধতিতে বেসন তৈরি – ঘরে বসে বেসন তৈরী করার উপায়
ঘরে বসে বেসন তৈরি করার উপায়

বাজারে যেসকল বেসন পাওয়া যায় তাতে ভেজাল থাকার সম্ভবনা একেবারে উড়িয়ে দেওয়া যায় না। তাই ত্বকের ক্ষতি এড়াতে ঘরোয়া পদ্ধতিতে বেসন তৈরি করে নেওয়াই ভালো।

উপকরণ:

  • ২ কাপ ছোলা বুট/ মসুর ডাল
  • আধ কাপ সিদ্ধ চাল

প্রণালি:

প্রথমে ছোলা বুট বা মসুর ডাল ধুয়ে শুকিয়ে নিতে হবে। সেইসাথে সিদ্ধ চালের পানি ঝরিয়ে শুকিয়ে নিন। এবার একটি গরম প্যানে ডাল ও সিদ্ধ চাল ঢেলে ১৫-২০ মিনিট নেড়ে নেড়ে ভাজুন। চুলা থেকে নামিয়ে ঠান্ডা করে ব্লেন্ডারে ব্লেন্ড করুন। মিহি বেসন পেতে একটি চালনিতে চেলে নিতে পারেন। চালনিতে থেকে যাওয়া বড় দানাগুলো আবারো ব্লেন্ড করে ছেঁকে নিন। সিদ্ধ চালের পরিবর্তে আপনি চালের গুঁড়াও ব্যবহার করতে পারেন। এইতো হয়ে গেল বাড়িতে তৈরি নিরাপদ ও ফ্রেশ বেসন।

এবার বেসনটি একটি এয়ার টাইট বোতল বা মুখবন্ধ বোয়ামে রেখে দিন। এই হোম মেড বেসন আপনি সাধারণ তাপমাত্রায় ৩ মাস পর্যন্ত সংরক্ষণ করতে পারেন।

ত্বকের কালো দাগ দূর করতে বেসন

ত্বকের কালো দাগ দূর করতে বেসনের কিছু ফেসপ্যাক খুবই ভালো কাজে দেয়। নিয়মিত ফেসপ্যাকগুলো ব্যবহারে কয়েকদিনের মধ্যেই আপনি পার্থক্য বুঝতে পারবেন।

ত্বকের কালো দাগ দূর করতে বেসনের ফেসপ্যাক
ত্বকের কালো দাগ দূর করার জন্য বেসনের ব্যবহার

#১ লেবুর রস, টকদই এবং বেসনের ফেসপ্যাক

উপকরণ:

  • ৪ চা চামচ বেসন
  • ১ চা চামচ লেবুর রস
  • ১ চা চামচ টকদই

পদ্ধতি:

সবগুলো উপাদান একসাথে খুব ভালো করে মেশান। পরিষ্কার ত্বকে লাগিয়ে শুকিয়ে যাওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করুন। এবার পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে দুবার ফেসপ্যাকটি ব্যবহার করতে পারেন।

#২ বেসন, লেবুর রস ও দুধের ফেসপ্যাক

উপকরণ:

  • ৪ চা চামচ বেসন
  • ১ চা চামচ লেবুর রস
  • ১ টেবিল চামচ কাঁচা দুধ

পদ্ধতি:

সবগুলো উপাদান একসাথে মিশিয়ে ত্বকে লাগান। ৪-৫ মিনিট আলতোভাবে ম্যাসাজ করে শুকিয়ে যাওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করুন। এবার পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। বেসনের এই ফেসপ্যাকটি সপ্তাহে দুবার ব্যবহারে ত্বকের কালচে ভাব দূর হওয়ার পাশাপাশি ত্বকের উজ্জ্বলতাও ফিরে আসবে।

আরও পড়ুন-

#৩ বেসন, লেবুর রস, দুধ ও মধুর ফেসপ্যাক

উপকরণ:

  • ৪ চা চামচ বেসন
  • ১ চা চামচ লেবুর রস
  • ১ চা চামচ মধু
  • ১ টেবিল চামচ কাঁচা দুধ

পদ্ধতি:

সবগুলো উপাদান একসাথে মিশিয়ে একটি স্মুদ মিশ্রণ তৈরি করুন। মিশ্রণটি ত্বকে লাগান। শুকিয়ে এলে পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এটি তৈলাক্ত ত্বকের কালো দাগ দূর করতে খুবই ভালো একটি ফেসপ্যাক। সপ্তাহে দুবার করে প্যাকটি ব্যবহার করতে পারেন।

#৪ হলুদ ও বেসনের ফেসপ্যাক

উপকরণ:

  • ২ চা চামচ বেসন
  • ১ চা চামচ হলুদ গুঁড়া
  • ১ চা-চামচ লেবুর রস
  • ১ চা চামচ টকদই

পদ্ধতি:

সবগুলো উপাদান খুব ভালো করে মিশিয়ে ত্বকে লাগান। শুকিয়ে যাওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করুন। এবার পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এটি ত্বকের কালো দাগ দ্রুত দূর করবে। ভালো ফল পেতে প্যাকটি টানা কয়েকদিন ব্যবহার করুন।

#৫ বেসন, চন্দন গুঁড়ো ও দুধের ফেসপ্যাক

উপকরণ:

  • ২ চা চামচ বেসন
  • ২ চা চামচ চন্দন গুঁড়ো
  • ৪ চা চামচ দুধ

পদ্ধতি:

উপকরণগুলো একসাথে মিশিয়ে একটি স্মুদ মিশ্রণ তৈরি করুন। বেশি ঘন মনে হলে তাতে সামান্য পানি যোগ করতে পারেন। মিশ্রণটি মুখে লাগান এবং ২০-২৫ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন। প্যাকটি সপ্তাহে দুবার করে ব্যবহার করতে পারেন।

#৬ মেথি ও বেসনের ফেসপ্যাক

উপকরণ:

  • ২ চা চামচ মেথি
  • ২ চা চামচ বেসন
  • ৩ চামচ টকদই

পদ্ধতি:

উপাদানগুলো খুব ভালো করে মেশান। পরিষ্কার ত্বকে লাগিয়ে ৩-৪ মিনিট ম্যাসাজ করুন। প্যাকটি ত্বকে শুকিয়ে যাওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করুন। এবার পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এটি সপ্তাহে দুবার করে ব্যবহার করতে পারেন।

#৭ মেছতার দাগে অ্যালোভেরা ও বেসনের ফেসপ্যাক

উপকরণ:

  • ৩ চা চামচ বেসন
  • ২ চা চামচ পানি
  • ১ চামচ অ্যালোভেরা জেল

পদ্ধতি:

বেসন ও পানি মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করুন। তার সাথে অ্যালোভেরা জেল মিশিয়ে মিশ্রণটি মেছতার দাগে লাগান। ২০ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন। প্যাকটি একদিন পর পর ব্যবহার করতে পারেন। তবে দাগ কমে এলে প্যাকের ব্যবহারও কমিয়ে আনতে হবে।


রোদে পোড়া দাগ দূর করতে বেসনের ফেসপ্যাক

কড়া রোদে আমাদের ত্বকের বাইরের আবরণ কিছুটা পুড়ে যায়। এই পোড়া দাগ ত্বকের সৌন্দর্য নষ্ট করে। রোদে পোড়া দাগ দূর করতেও ব্যবহার করতে পারেন বেসনের তৈরি ফেসপ্যাক।

রোদে পোড়া দাগ দূর করতে বেসনের ফেসপ্যাক

#৮ বেসন, গোলাপজল ও লেবুর রসের ফেসপ্যাক

উপকরণ:

  • ৪ চা চামচ বেসন
  • ২ চা চামচ গোলাপজল
  • ১ চা চামচ লেবুর রস

পদ্ধতি:

সবগুলো উপাদান একসাথে মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করুন। মিশ্রণটি ত্বকে লাগিয়ে ২০ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন। একদিন পর পর ব্যবহারে রোদে পোড়া কালো দাগ দ্রুত দূর হবে।

#৯ হলুদ, দই ও বেসন এর ফেসপ্যাক

উপকরণ:

  • ৩ চা চামচ বেসন
  • ১ চা চামচ হলুদ গুঁড়া
  • ৩ চা চামচ দই

পদ্ধতি:

সবগুলো উপাদান ভালো করে মিশিয়ে ত্বকে লাগান। ২০ মিনিট পর ঠাণ্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে তিনদিন প্যাকটি ব্যবহার করতে পারেন।

#১০ টমেটো ও বেসনের ফেসপ্যাক

উপকরণ:

  • ৩ চা চামচ বেসন
  • ৩ স্লাইস পাকা টমেটো

পদ্ধতি:

টমেটো স্লাইসগুলো পেস্ট করে নিন। তার সাথে যোগ করুন বেসন। মিশ্রণটি ত্বকে লাগিয়ে ম্যাসাজ করে ২০ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে ৩ দিন প্যাকটি ব্যবহার করতে পারেন।

#১১ বেসন, পেঁপে ও কমলালেবুর ফেসপ্যাক

উপকরণ:

  • ২ টেবিল চামচ বেসন
  • ৩ টুকরো পাকা পেঁপে
  • ২ চা চামচ কমলালেবুর রস

পদ্ধতি:

পেঁপে চটকে তার সাথে বেসন ও কমলালেবুর রস যোগ করে একটি স্মুদ মিশ্রণ তৈরি করুন। মিশ্রণটি ত্বকে লাগিয়ে ২৫-৩০ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন। প্যাকটি সপ্তাহে একবার করে ব্যবহার করতে পারেন।


শুষ্ক ত্বকের রুক্ষতা দূর করতে বেসনের ফেসপ্যাক

শুষ্ক ত্বকের জন্য বেসনের কিছু ফেসপ্যাক খুবই ভালো কাজে দেয়। ত্বক ময়েশ্চারাইজ করে ত্বকের সজীবতা ও সতেজতা ফিরিয়ে আনে। ত্বক করে তোলে নরম ও মোলায়েম।

#১২ মধু ও বেসনের ফেসপ্যাক

উপকরণ:

  • ২ চামচ বেসন
  • ১ চা চামচ পানি
  • ১ চামচ মধু

পদ্ধতি:

বেসন ও পানি মিশিয়ে একটি ঘন পেস্ট তৈরি করুন। তার সাথে যোগ করুন ১ চামচ মধু। মিশ্রণটি ত্বকে লাগিয়ে ম্যাসাজ করুন। ২০ মিনিট পর কুসুম গরম পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন। প্যাকটি সপ্তাহে একবার করে ব্যবহার করতে পারেন। এটি ত্বকের রুক্ষতা দূর করার পাশাপাশি ত্বকের বলিরেখাও কমিয়ে আনবে।

#১৩ মধু, দুধ, হলুদ ও বেসনের ফেসপ্যাক

উপকরণ:

  • ৪ চা চামচ বেসন
  • ১ চা চামচ হলুদ বাটা
  • ২ চা চামচ মধু
  • ১ চা চামচ দুধের সর/ফুলক্রিম মিল্ক।

পদ্ধতি:

সবগুলো উপাদান একসাথে মিশিয়ে ত্বকে লাগান। ১৫-২০ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন। বেসনের এই প্যাকটি সপ্তাহে তিনদিন করে ব্যবহার করতে পারেন।

#১৪ অ্যালোভেরা জেল ও বেসনের ফেসপ্যাক

উপকরণ:

  • ৩ চা চামচ বেসন
  • ২ চামচ অ্যালোভেরা জেল

পদ্ধতি:

বেসন ও অ্যালোভেরা মিশিয়ে একটি ঘন মিশ্রণ তৈরি করুন। মিশ্রণটি ত্বকে লাগিয়ে ২০ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে ২-৩ বার প্যাকটি ব্যবহার করতে পারেন।

#১৫ কলা ও বেসনের ফেসপ্যাক

উপকরণ:

  • ৩ টুকরো পাকা কলা
  • ৪ চা চামচ বেসন
  • ১ চা চামচ পানি

পদ্ধতি:

প্রথমে বেসন ও পানি মিশিয়ে একটি স্মুদ মিশ্রণ তৈরি করুন। তার সঙ্গে যোগ করুন চটকে নেওয়া কলার পেস্ট। মিশ্রণটি ত্বকে লাগিয়ে ২০ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে ৩ দিন করে প্যাকটি ব্যবহার করতে পারেন।

প্রয়োজন হতে পারে এমন কিছু-


তৈলাক্ত ত্বকের যত্নে বেসনের ফেসপ্যাক

তৈলাক্ত ত্বকের তেল চিটচিটে ভাব দূর করতে ব্যবহার করতে পারেন বেসন। বেসনের তৈরি ফেসপ্যাক ত্বকের অতিরিক্ত তেল অপসারণ করে ত্বকের সতেজতা ধরে রাখতে ভীষণ কার্যকর।

তৈলাক্ত ত্বকের যত্নে বেসনের ফেসপ্যাক

#১৬ বেসন ও গোলাপজলের ফেসপ্যাক

উপকরণ:

  • ২ চা চামচ বেসন
  • ১ চা চামচ গোলাপজল

পদ্ধতি:

বেসন ও গোলাপজল মিশিয়ে একটি ঘন প্যাক তৈরি করুন। ত্বকে লাগিয়ে ১৫-২০ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন। ত্বকের অতিরিক্ত তেল দূর করতে ফেসপ্যাকটি নিয়মিত ব্যবহার করতে পারেন।

#১৭ দুধ ও বেসনের ফেসপ্যাক

উপকরণ:

  • ৪ চা চামচ বেসন
  • ২ চামচ দুধ অথবা দই

পদ্ধতি:

উপাদানগুলো একসাথে মিশিয়ে একটি স্মুদ মিশ্রণ তৈরি করুন। ত্বকে লাগিয়ে ম্যাসাজ করুন। ২০ মিনিট পর ত্বক পানি দিয়ে ধুয়ে পরিষ্কার করে নিন। এটি তৈলাক্ত ত্বকের জন্য খুবই ভালো একটি ফেসপ্যাক।


ব্রণ ও ব্রণের দাগ দূর করতে বেসনের ফেসপ্যাক

ব্রণ বা ব্রণের দাগে মুখ ভরে যাচ্ছে? নিয়মিত বেসনের তৈরি ফেসপ্যাক ব্যবহারে এ সমস্যা থেকে সহজেই মুক্তি পেতে পারেন।

ব্রণ ও ব্রণের দাগ দূর করতে বেসনের ফেসপ্যাক

#১৮ বেসন ও হলুদের ফেসপ্যাক

উপকরণ:

  • ১ চা চামচ বেসন
  • আধ চা চামচ হলুদ গুঁড়ো/বাটা
  • ১ টেবিল চামচ পানি

পদ্ধতি:

বেসন ও হলুদ গুঁড়োর সঙ্গে পানি যোগ করে একটি স্মুদ মিশ্রণ তৈরি করুন। মিশ্রণটি শুধু ব্রণের স্থানে লাগান। ২০ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন। প্যাকটি ব্রণ পুরোপুরি দূর না হওয়া পর্যন্ত প্রতিদিন ব্যবহার করতে হবে।

#১৯ বেসন ও চন্দনের ফেসপ্যাক

উপকরণ:

  • ১ চামচ বেসন
  • ১ চামচ চন্দন গুঁড়ো
  • ১ চা চামচ দুধ
  • ১ চা চামচ পানি

পদ্ধতি:

উপাদানগুলো মিশিয়ে একটি ঘন মিশ্রণ তৈরি করুন। মিশ্রণটি ব্রণ বা ব্রণের দাগে লাগান। ১৫-২০ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন। আপনি চাইলে তাতে সামান্য হলুদ গুঁড়ো/বাটা মেশাতে পারেন। ব্রণ দূর না হওয়া পর্যন্ত টানা কয়েকদিন প্যাকটি ব্যবহার করতে হবে।

#২০ বেসন, চন্দন, হলুদ ও গোলাপজলের ফেসপ্যাক

উপকরণ:

  • ৪ চা চামচ বেসন
  • ২ চা চামচ চন্দন গুঁড়া
  • ১ চা চামচ হলুদ গুঁড়া/বাটা
  • ৪ চা চামচ গোলাপজল

পদ্ধতি:

সবগুলো উপাদান একসাথে মিশিয়ে ত্বকে লাগান। ২০-২৫ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন। ব্রণ ও ব্রণের দাগ দূর করতে ফেসপ্যাকটি একদিন পর পর ব্যবহারে ভালো ফল পাবেন।

#২১ বেসন ও মধুর ফেসপ্যাক

উপকরণ:

  • ৪ চা চামচ বেসন
  • ২ চামচ কুসুম গরম মধু

পদ্ধতি:

বেসন ও মধু একসঙ্গে মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করে ত্বকে লাগান। ১০-১৫ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন। প্যাকটি টানা কয়েকদিন ব্যবহার করতে হবে।

#২২ ডাবের পানি ও বেসনের ফেসপ্যাক

উপকরণ:

  • ৩ চা চামচ বেসন
  • ২ চামচ ডাবের পানি

পদ্ধতি:

বেসন ও ডাবের পানি একসঙ্গে মিশিয়ে ব্রণের দাগ বা গর্তের উপর লাগান। ২০ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন। প্যাকটি একদিন পর পর ব্যবহারে ভালো ফল পাবেন। ধীরে ধীরে দাগ কমে এলে প্যাকের ব্যবহারও কমিয়ে আনতে হবে।

#২৩ গ্ৰিন টি ও বেসনের ফেসপ্যাক

উপকরণ:

  • ৪ চা চামচ বেসন
  • ১ টি গ্ৰিন টি
  • আধ কাপ গরম পানি

পদ্ধতি:

গরম পানিতে গ্ৰিন টি ব্যাগ ভিজিয়ে গ্ৰিন টি লিকার তৈরি করুন। এবার ৪-৫ চা চামচ লিকারের সাথে বেসন মিশিয়ে ত্বকে লাগান। ১৫ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন। প্যাকটি সপ্তাহে একদিন করে ব্যবহার করতে পারেন।

#২৪ নিম ও বেসনের ফেসপ্যাক

উপকরণ:

  • ১ টেবিল চামচ শুকনো নিম পাউডার
  • ১ টেবিল চামচ বেসন
  • ১ টেবিল চামচ টকদই

পদ্ধতি:

নিমপাতা শুকিয়ে গুঁড়ো করে নিন। নিম গুঁড়োর সাথে বেসন ও টকদই মিশিয়ে একটি ঘন মিশ্রণ তৈরি করুন। মিশ্রণটি ত্বকে লাগিয়ে ২০ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন। প্যাকটি সপ্তাহে একবার করে ব্যবহার করাই যথেষ্ট। এটি তৈলাক্ত ত্বকের জন্যেও বেশ ভালো।


লোমকূপের যত্নে বেসনের ফেসপ্যাক

লোমকূপে জীবাণুর সংক্রমণের জন্যই প্রতিনিয়ত আমাদের ত্বকে নতুন নতুন সমস্যা দেখা দেয়। তাই ত্বককে সুস্থ রাখতে প্রয়োজন লোমকূপ জীবাণুমুক্ত রাখা এবং ত্বকের মৃতকোষ দূর করা।

#২৫ শশা ও বেসনের ফেসপ্যাক

উপকরণ:

  • ৩ চা চামচ বেসন
  • ২ চামচ শশার রস

পদ্ধতি:

বেসন ও শশার রস একসঙ্গে মিশিয়ে ত্বকে লাগান। ২০ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন। প্যাকটি একদিন পর পর ব্যবহারে লোমকূপ দ্রুত সংকোচিত হয়ে জীবাণুর সংক্রমণ রোধ হবে এবং ত্বক‌ হয়ে উঠবে সজীব ও প্রাণবন্ত।

#২৬ খোলা লোমকূপ বন্ধ করতে মুলতানি মাটি ও বেসন

উপকরণ:

  • ২ চা চামচ বেসন
  • ১ চা চামচ মুলতানি মাটি
  • ১ টেবিল চামচ দুধ
  • ১ টেবিল চামচ গোলাপজল।

পদ্ধতি:

সবগুলো উপাদান ভালো করে মিশিয়ে একটি স্মুদ মিশ্রণ তৈরি করুন। ত্বকে লাগিয়ে ম্যাসাজ করুন। ২০-২৫ মিনিট পর ঠাণ্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। প্যাকটি সপ্তাহে ১ বার করে ব্যবহার করতে পারেন।

#২৭ মৃতকোষ দূর করতে দুধ ও বেসনের ফেসপ্যাক

উপকরণ:

  • ৪ চা চামচ বেসন
  • ৩ চামচ দুধ

পদ্ধতি:

বেসন ও দুধ একসঙ্গে মিশিয়ে মুখে লাগান। ১৫ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে একবার ব্যবহারে ত্বকের মৃতকোষ দূর হওয়ার পাশাপাশি বয়সের ছাপও কমে আসবে।


ত্বক উজ্জ্বল করতে বেসনের ফেসপ্যাক

ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়াতে ক্যামিকেল প্রোডাক্ট ব্যবহার করেন অনেকেই। এসব ক্যামিকেল ত্বক উজ্জ্বল করলেও রেখে যায় তার সাইড ইফেক্ট। প্রাকৃতিক উপায়ে ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়াতে ব্যবহার করতে পারেন বেসনের তৈরি ফেসপ্যাক। ত্বক উজ্জ্বল করতে এসব ফেসপ্যাক যেমন উপকারী তেমনি নিরাপদ।

#২৮ আমন্ড বাদাম ও বেসনের ফেসপ্যাক

উপকরণ:

  • ৪ টি আমন্ড বাদাম
  • ২ চা চামচ বেসন
  • ১ চা চামচ দুধ
  • ১ চামচ লেবুর রস

পদ্ধতি:

প্রথমে বাদামগুলো গুঁড়ো করে নিন। তার সাথে যোগ করুন বেসন, দুধ ও লেবুর রস। মিশ্রণটি ত্বকে লাগান এবং ১৫-২০ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন। প্যাকটি সপ্তাহে তিনদিন করে ব্যবহার করতে পারেন।

#২৯ দুধ, লেবু ও বেসনের ফেসপ্যাক

উপকরণ:

  • ৪ চা চামচ বেসন
  • ২ চা চামচ কাঁচা দুধ
  • ১ চা চামচ লেবুর রস

পদ্ধতি:

বেসনের সঙ্গে দুধ ও লেবুর রস খুব ভালো করে মিশিয়ে নিন। দুধের পরিবর্তে আপনি দই ব্যবহার করতে পারেন। মিশ্রণটি ত্বকে লাগান এবং ১৫ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন। এই‌ ফেসপ্যাকটি সবধরনের ত্বকের জন্য উপযোগী হলেও সেনসিটিভ ত্বকে ব্যবহার না করাই ভালো। সপ্তাহে তিনদিন প্যাকটি ব্যবহার করতে পারেন।

#৩০ বেসন, দুধ ও আমন্ড অয়েলের ফেসপ্যাক

উপকরণ:

  • ৪ চা চামচ বেসন
  • ২ চা চামচ কাঁচা দুধ
  • ১ চা চামচ আমন্ড অয়েল

পদ্ধতি:

বেসন, দুধ ও তেল একসঙ্গে মিশিয়ে প্যাক তৈরি করে ত্বকে লাগান। ২০ মিনিট পর কুসুম গরম পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। বেসনের এই প্যাকটি সপ্তাহে একবার করে ব্যবহার করতে পারেন।

#৩১ কমলার রস ও বেসনের ফেসপ্যাক

উপকরণ:

  • ৩ চা চামচ বেসন
  • ৪-৫ চামচ কমলার রস

পদ্ধতি:

বেসন ও কমলার রস ভালো করে মিশিয়ে একটি স্মুদ মিশ্রণ তৈরি করুন। মিশ্রণটি ত্বকে লাগান এবং ২০ মিনিট পর পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। প্যাকটি সপ্তাহে ৩ দিন ব্যবহারে ত্বকের উজ্জ্বলতা দ্রুত ফিরে আসবে।

আপনার সুবিধা ও পছন্দমত উপরের যেকোন ফেসপ্যাক বেছে নিতে পারেন। তবে একসাথে একাধিক ফেসপ্যাক ব্যবহার করা যাবে না। সেইসাথে ফেসপ্যাক ব্যবহারের পর ত্বকে অবশ্যই বরফ লাগাতে হবে।

সম্পাদকের বাছাই-

Share this

1 thought on “বেসনের ফেসপ্যাক : ত্বকের যত্নে বেসনের ৩১টি ফেসপ্যাক তৈরির নিয়ম”

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *